HalimBD.com

কিউআরকোড



পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাওয়ার জন্য আপনি যখন বাংলাদেশ পুলিশের অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স ওয়েব পেজে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রাদিসহ একখানা আবেদন সাবমিট করেন তখন প্রয়োজনীয় যাচাই-বাছাইয়ের পর আপনাকে একটি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট দেওয়া হয়। উক্ত সার্টিফিকেটে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য থাকে। আপনার তথ্যাবলি এবং এই সার্টিফিকেটটি যে মিথ্যা নয় তারই স্বাক্ষ্য দেয় কিউআরকোড। সত্য-মিথ্যা আলাদা করার জন্য ব্যবহার করা হয় কিউআরকোড। যা দেখতে কালো রঙের আয়তার। এটা আপনার সার্টিফিকেটের উপরে বাম দিকে দেওয়া আছে। তাই সার্টিফিকেট হাতে পাওয়ার পর ভালভাবে দেখে নিতে হবে আপনার সার্টিফিকেটের উপর কিউআরকোডটি আছে কিনা ।


বর্তমান ঠিকানায় আবেদন করলে আবেদনটি বাতিল করা হচ্ছে


আপনার পাসপোর্টের ইমার্জেন্সি কন্টাক্টের এড্রেসটি আপনি বর্তমান ঠিকানা হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন তবে এখানে শর্ত থাকে যে আপনার ইমার্জেন্সি কন্টাক্টের এড্রেসটি অবশ্যেই সংশ্লিষ্ট মেট্রো/জেলার অধীনে হতে হবে। অন্যথায় সংশ্লিষ্ট মেট্রো/জেলার পুলিশ অফিস আপনার বর্তমান ঠিকানায় আবেদন গ্রহণ করবেন না। একটু পরিস্কার করে বললে- আপনার পাসপোর্টের এড্রেসেটি যদি ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার কোন একটি থানা হয় তাহলেই কেবল আপনি অন্য থানার অধীনে আবেদন করতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে আপনি বর্তমানে যে ওয়ার্ডে বসবাস করছেন সেই ওয়ার্ডের একটি কাউন্সিলর সার্টিফিকেটর প্রয়োজন হবে। আবেদনের কাজ করার সময় পাসপোর্ট কপি যেখানে আপলোড করবেন সেইখানে ওয়ার্ড কাউন্সিলর সার্টিফিকেট আপলোড করার জায়গায় উক্ত সার্টিফিকেটটি আপলোড করতে হবে ।

আবেদন করা নিয়মাবলি

একটি আবেদন সাবমিট করার জন্য আপনাকে ছয়টি ( ০৬ ) ধাপ অতিক্রম করতে হবে।

( ১ ) Personal Information প্রথম ধাপে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাওয়ার জন্য পাসপোর্ট নম্বরসহ ব্যক্তিগত তথ্য দিতে হয়। তখন একটি রেফারেন্স নম্বর ক্রিয়েট হয়। উদাঃ 190******* এই নম্বরটি অত্যন্ত গুরুত্ত্বপূর্ণ । আপনি যখন আপনার প্রয়োজনে পুলিশ আইটি হেল্পডেস্কে ফোন করবেন তখন আপনাকে হেল্প করার জন্য পুলিশ আইটি হেল্পডেস্ক থেকে আপনার রেফারেন্সটি জানতে চাইবে।
( ২ ) Personal Address দ্বিতীয় ধাপে আপনার ঠিকানার তথ্য দিতে হয়। তখন সিস্টেমস আপনাকে তৃতীয় ধাপে নিয়ে যাবে।
( ৩ ) Documents তৃতীয় ধাপে আপনার পাসপোর্ট কপিসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় কাগজ আপলোড করতে হয়। আপনি যখন এই ধাপটিও অতিক্রম করবেন তখন সিস্টেমস আপনাকে পরের ধাপে নিয়ে যাবে।
( ৪ ) Confirmation চতুর্থ ধাপটি আপনার জন্য খুবই গুরত্ত্বপূর্ণ। সিস্টেমসকে আপনি নিশ্চত করছেন যে, আপনি আবেদনের সময় যেসব তথ্য ইনপুট করেছেন সব ঠিক আছে, কোথাও কোন ভুল নেই। পরবর্তীতে আপনি যখন সার্টিফিকেটটি হাতে পেলেন তখন দেখলেন এক জায়গা নয়, তিন জায়াগায় ভুল হয়েছে। যদি এমন ভুল হয় কি করবেন? তথ্যগত ভূল সংশোধন করার উপায়
( ৫ ) Payment পঞ্চম ধাপটির নামই হচ্ছে Payment Payment এর কাজ করার নিয়ম আবেদন করার নিয়ম




Copyright © All Rights Reserved By Halim BD