HalimBD.com

অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট বিডি


অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট বিডি আপনার জন্যে একটি অনলাইন সেবা। ডিজিটাল বাংলাদেশের অনন্য সেবা। আপনার আবেদনের কারেন্ট স্ট্যাটাস বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য জেনে নিন।

Application Submitted

Application Submitted তার মানে আবেদনের কাজ সঠিকভাবে সম্পন্ন করেছেন । আবেদনটি এখনও থানায় প্রেরণ করা হয়নি। একটি আবেদন সাবমিট হওয়ার পর কি কি কাজ করা হয় তা পূর্বে আলোচনা করা হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট যদি আপনার বিপক্ষে যায় তাহলে আপনার আবেদনটি বাতিল হয়ে যাবে। আপনার আইডিতে প্রবেশ করার পর My Account এ ক্লিক করবেন তারপর সেখান থেকে আপনার রেফারেন্স নম্বরটি সার্চ করলে সর্বডানে আপনার কারেন্ট স্ট্যাটাস ও আবেদন বাতিলের কারণটি দেখতে পাবেন। ভুল সংশোধনের পর আপনি পুনরায় আবেদন করার সুযোগ পাবেন। এক্ষেত্রে আপনি পূর্বের চালান তথ্য ব্যবহার করতে পারবেন। আপনার আবেদনটি প্রাথমিক বাছাইয়ে টিকে গেলে সংশ্লিষ্ট থানায় প্রেরণ করা হবে। তখন আপনার কারেন্ট স্ট্যাটাস দেখাবে Payment Received এরপর তদন্তের কাজ।

Under Verification

Under Verification এর মানে হলো তদন্তাধীন। আপনার আবেদনটির পক্ষে একটি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রদানের লক্ষ্যে চূড়ান্ত কাজ চলমান আছে। থানার ওসির আইডিতে যখন আবেদনটি ছিল তখন আপনার আইডিতে আপনি দেখেছেন Payment Received. ওসি আইডি থেকে আবেদনটি তদন্তকারী অফিসারের আইডিতে প্রেরণ করা হয়েছে। তাই আপনি কারেন্ট স্ট্যাটাসে Under Verification দেখতে পাচ্ছেন। এই কাজ সফলভাবে সমাপ্ত হলেই আপনি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাবেন। আপনি যদি আপনার আবেদনে উল্লেখিত ঠিকানায় বসবাস না করেন তাহলে আপনি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাবেন না। এখানে উল্লেখ্য যে, আপনার ঠিকানাটি অবশ্যই স্থায়ী/বর্তমান ঠিকানার পক্ষে থাকতে হবে। আর আপনি যদি ভাড়াটিয়া বাসার ঠিকানা ব্যবহার করেন তাহলেও আপনি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পাবেন না। তাই তদন্তের কথা মাথায় রেখে বর্তমান ঠিকানার পাশাপাশি স্থায়ী ঠিকানা ব্যবহার করাই উত্তম। অনেক সময় দেখা যায় আপনার ঠিকানাটি অন্য থানার অধীনে হয়ে গেছে তখন উক্ত ঠিকানার পক্ষে একটি ওয়ার্ড কাউন্সিলর সার্টিফিকেট জমা দেওয়ার প্রয়োজন হয়। কখনও বা আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রেরও প্রয়োজন হতে পারে তাই প্রয়োজনীয় সমস্ত কাগজপত্র সঙ্গে রাখাই উত্তম। সরেজমিনে তদন্তের পর তদন্তকারী অফিসার আরো দেখবেন যে, থানায় আপনার বিরুদ্ধে কোন মামলা আছে কিনা। তদন্ত রিপোর্ট যদি আপনার পক্ষে থাকে আর সংশ্লিষ্ট থানায় আপনার বিরুদ্ধে কোন মামলা না থাকে তাহলে আপনার পক্ষে একটি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রিন্ট করা হবে।


Ready for Print

Ready for Print খুবই ভাল সংবাদ। তবে একটু অসাবধানতায় পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি হাতে পাওয়ার পরও আপনি কোন কাজে লাগাতে পারবেন না। বিপরীতে যোগ হতে পারে টেনশন ও বাড়তি টাকা খরচ সেই সঙ্গে নতুন করে আবেদনের ঝামেলা তো আছেই। Ready for Print খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ধাপ। এই ধাপের কাজ হওয়ার সময় নিশ্চিন্ত থাকার কোন সুযোগ নেই। কারণটা বলছি, আপনি যখন আবেদনের কাজ করছিলেন তখন হয়ত একটি বানান ভুল হয়েছে যা আপনার চোখে পড়েনি। আবার তদন্তকারী অফিসারের চোখেও পড়ল না। আর এই অবস্থায় আপনার পক্ষে উক্ত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি প্রিন্ট করা হলো। বানান ভুলযুক্ত সার্টিফিকেট আপনার কোন উপকারে আসবে একবার ভাবুন। তারপরে আপনাকে কি কি ঝামেলায় পড়তে হবে তা নিশ্চই বুঝতে পারছেন। তাই আবেদন সাবমিট করার সময় খুবই সতর্কতার সহিত কাজ করুন। এরপরও যদি ভুল হয়ে যায় তাহলে আপনি সার্টিফিকেট প্রিন্ট করার আগেই সেটা ঠিক করে নিন। তদন্তকারী অফিসার অথবা পুলিশ আইটি হেল্পডেস্কের সহায়তা নিন।

Certificate Printed

Certificate Printed এর মানে কি তা নিশ্চয়ই আর বলার অপেক্ষা রাখে না। এর মানে বুঝতে কারও ভুলও হয় না। তবে সবাই যে ভুলটা করে সেটা হলো পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রিন্ট হলেই বুঝি সঙ্গে সঙ্গে হাতে পাওয়া যায়। না । পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট প্রিন্ট হলেই আপনি হাতে পাবেন না। কারণ এরপরও আরো কাজ থাকে। সার্টিফিকেট প্রিন্ট হওয়ার পর উহাতে থানার অফিসার ইনচার্জের স্বাক্ষর ও সীলমোহরযুক্ত হয়। Certificate Printed থাকাবস্থায় যদি আপনি দেখেন যে, আপনার আবেদনের কোন একটি জাগায় বানানের ভুল আছে তাহলে তা সংশোধন করার আরো একটি সুযোগ পাবেন। আর এই কাজটি করুন থানার ওসি কর্তৃক স্বক্ষরের পূর্বেই। কেননা বানান ভুলযুক্ত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট আপনার কোন উপকারে আসবে না।


Sign by OC

Sign by OC এর মানে হলো পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি সংশ্লিষ্ট থানার ওসি কর্তৃক স্বাক্ষরিত হয়েছে। থানার অফিসার ইনচার্জের স্বাক্ষর ও সীলমোহরযুক্ত সার্টিফিকেটটি পরবর্তী কাজের জন্য সংশ্লিষ্ট মেট্রো/ জেলার উর্ধ্বতন পুলিশ অফিসার বরাবর প্র্রেরণ করা হয় । আপনার ঠিকানাটি মেট্রো এলাকায় হলে ডিসি অফিস বরাবর অথবা জেলাধীন হলে এসপি অফিসে বরাবর প্রেরণ করা হয়। যদি আপনার ঠিকানাটি ঢাকামেট্রোপলিটন পুলিশ এলাকার অধীনে হয় তাহলে আপনি একটু আগে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি পেতে পারেন। আর যদি আপনার ঠিকানাটি ঢাকার বাহিরে হয় তাহলে একটু বেশি সময় লাগবে। তাই একটু আগে পাওয়ার জন্য অনেকেই ঢাকার বর্তমান ঠিকানাটি ব্যবহার করেন যা পাসপোর্টে নেই। যারপ্রেক্ষিতে আবেদনটি বাতিল হয়ে যায়। থানার কাজ শেষ হওয়ার পর আর মাত্র্র দুটি কাজ বাকি থাকে।

Sign by DC/SP

Sign by DC/SP এর মানে হলো পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি সংশ্লিষ্ট মেট্রো/ জেলার উর্ধ্বতন পুলিশ অফিসার কর্তৃক স্বাক্ষরিত হয়েছে। মেট্রো/ জেলার উর্ধ্বতন পুলিশ অফিসারের স্বাক্ষর ও সীলমোহরযুক্ত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি পরবর্তী কাজের জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়, ঢাকা বরাবর প্র্রেরণ করা হয় । আপনার ঠিকানাটি মেট্রো এলাকায় হলে ডিসি কর্তৃক অথবা জেলাধীন হলে এসপি কর্তৃক ঢাকায় প্রেরণ করা হয়। যদি আপনার ঠিকানাটি ঢাকামেট্রোপলিটন পুলিশ এলাকার অধীনে হয় তাহলে আপনি একটু আগে সার্টিফিকেটটি পেতে পারেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়, ঢাকা কর্তৃক স্বাক্ষরিত ও সীলমোহরযুক্ত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি সংশ্লিষ্ট পুলিশ অফিসে ফেরত দেওয়া হয়। এই কাজ সম্পন্ন হলে সংশ্লিষ্ট পুলিশ অফিস উক্ত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি আবেদকারীর হাতে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করবে। আর মাত্র্র একটি কাজ বাকি থাকে।

Ready For Delivery

আপনি যখন আপনার কারেন্ট স্ট্যাটাসে আপনি Ready For Delivery দেখতে পাবেন তখনই বুঝতে হবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি সম্পূর্ণভাবে প্রস্তত আছে। মেট্রো/ জেলার উর্ধ্বতন পুলিশ অফিসারের স্বাক্ষর ও সীলমোহরযুক্ত যে, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়, ঢাকা বরাবর প্র্রেরণ করা হয়েছিল, সেটি পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়, ঢাকা কর্তৃক স্বাক্ষর ও সীলমোহরযুক্ত করার পর সংশ্লিষ্ট মেট্রো/ জেলা পুলিশ অফিসে ফেরত দেওয়া হয়েছে।

কারেন্ট স্ট্যাটাসে Ready For Delivery দেখানোর পর সংশ্লিষ্ট মেট্রো/ জেলা পুলিশ অফিস উক্ত সার্টিফিকেটটি আবেদকারীর হাতে পৌঁছানোর ব্যবস্থা করবে। তখন আপনি সেই কাঙ্খিত সার্টিফিকেটটি হাতে পাবেন/ সংগ্রহ করতে পারবেন। সার্টিফিকেট সংগ্রহ করার পদ্ধতি দুটি। ১- কুরিয়ারের মাধ্যমে, ২- হাতে হাতে। যদি হাতে হাতে নেন তাহলে আপনার জেলার পুলিশ সুপার আর মেট্রো হলে পুলিশ কমিশনার অফিসে যেতে হবে। আবেদন সাবমিট করার পর দিন হিসেবে ধরলে ঢাকার মধ্যে ০৭ কর্ম দিবস আর ঢাকার বাহিরে হলে ১০ কর্ম দিবসের বেশি নয়।

পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করব কিভাবে

এটা আপনার জন্য খুবই আনন্দের খবর যে, আপনি পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট পেতে যাচ্ছেন। আপনার কারেন্ট স্ট্যাটাসে আপনি যখন Ready For Delivery দেখতে পাবেন তখনই বুঝতে হবে পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি সম্পূর্ণভাবে প্রস্তত আছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে উক্ত পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেটটি আপনি কোন পুলিশ অফিস থেকে সংগ্রহ করবেন? পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করার জন্য অনেকেই পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে, ঢাকায় চলে আসেন। আর এই ভুলটা বেশি করেন ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় যারা বসবাস করেন। উনারা সরাসরি আমার ডেস্কে চলে আসেন! পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট নেওয়ার জন্য। তাই এই পেজটি আবার নতুন করে তৈরী করালাম। এই লেখাটি পড়ার পর নিশ্চয়ই আপনার আর ভুল হবেনা। আপনার সময় ও টাকা দুটোই বাচবে। ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স, ডিএমপি সদর দপ্তর, ঢাকা হতে ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় বসবাসকারিরা পুলিশ ক্লিয়ারেন্স সার্টিফিকেট সংগ্রহ করবেন। উক্ত অফিসটি চিনতে যদি আপনার অসুবিধা হয় তাহলে আপনি ঢাকা মহানগর পুলিশের ডিবি অফিস/মিডিয়া সেন্টার/বেইলী রোড/রমনা থানা/মগবাজার- যেকোনো একটি স্থানে উপস্থিত হয়ে ডিউটিরত পুলিশের/পথচারীর সহযোগীতা নিন।






Copyright © All Rights Reserved By Halim BD