Home Problems Status Pending Draft Chalan Rejectted E-Chalan Refused QR-Code Payment Apply Privacy About Contact More

How to input Chalan for pcc bd

ই-চালান তথ্য ইনপুট করার পদ্ধতি

    ই-চালান শব্দটা শুনতে খুবই ছোট মনে হলেও সঠিক জ্ঞান ও নিয়ম না জানার কারণে এটিই হয়ে উঠতে পারে আপনার আবেদন জমা প্রদানের প্রধান বাঁধা। গত ইং- ২৪/০২/১৯ তারিখ প্রচুর ফোন পেয়েছি যারা ই-চালানের মাধ্যমে ট্রেজারী চালানের টাকা ব্যাংকে জমা প্রদান করেছেন। তারা বলেন- আমি ই-চালানের মাধ্যমে টাকা জমা দিয়েছি এরপরও আমার আবেদনটা Pending for Payment দেখাচ্ছে। আমি সবাইকে একই প্রশ্ন করেছিলাম ভাই- আপনি কি ই-চালান কপির তথ্যগুলো ইনপুট করেছেন? তারা প্রায় সবাই একই কথা বলেছেন । তাদের বক্তব্য আমি তো বিকাশের মাধ্যমে Pay করেছি, আমার টাকা কেটে নিয়েছে কিন্তু এরপরও আমার আবেদনের কারেন্ট স্ট্যাটাস Pending for Payment দেখাচ্ছে। অনেকেই আবার বলেন- আমি তো কার্ডের মাধ্যমে টাকা জমা দিয়েছি, এটা Auto হয়ে যাওয়ার কথা না? তখন তাদেরকে বুঝিয়ে বলি এবং ই-চালান তথ্য ইনপুট করতে সহযোগী করি। যারা একটু সচেতন তারা ই-চালান দেওয়ার সময় টাকা জমা দেওয়ার রশিদটি প্রিন্ট করে রাখেন। আর যারা একটু বেশিই সহজ-সরল বা অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী তারা বিষয়টিকে গুরুত্ত্ব না দিয়ে এড়িয়ে যান এবং পরবর্তীতে সমস্যায় পড়েন। এমনও আবেদনকারীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে, যারা ই-চালানের রশিদটি প্রিন্ট করে রাখেন নি। ফলে তিনি আবেদন জমা প্রদান করতে পারেন নি। ই-চালান আপনার আবেদনেরই একটা অংশ। অনেকেই হয়ত মনে করেন যে, আমি বাংকে গিয়ে একবার টাকা দিয়ে আসব আবার সেই তথ্য ইনপুট করতে হবে, চালান কপি আপলোড করতে হবে। এতো ঝামেলার কি আছে। তার চেয়ে বরং ই-চালানের মাধ্যমে টাকা জমা দেই আর কোন ঝামেলা রইল না । সব কাজ অটো হয়ে যাবে। বিষয়টা এতোটা সহজ নয় । হ্যাঁ । এটা সত্য যে, আপনার ঝামেলা একটু কমেছে, কিন্তু আবেদনের কাজ কমেনি। ই-চালানের মাধ্যমে আপনি ব্যাংকে টাকা দিয়েছেন, এখন আপনি যে সেই ব্যাক্তি তা বোঝানোর জন্যই ই-চালানের কপিটি আবেদনের সাথে জমা দিতে হবে। বিষয়টি আরেকটু পরিস্কার করে বলি- আপনার আবেদনের প্রধান দুটি উপাদান হচ্ছে - ( ১ ) পাসপোর্ট কপি এবং ( ২) চালানকপি । চালানকপি ছাড়া আপনার আবেদন অসম্পূর্ণ। তাই বিষয়টি নিজে জানুন এবং অপরকে জানতে সহযোগী করুন। মনে রাখবেন, আবেদন ফরমের শেষ কাজ হচ্ছে ট্রেজারী চালান। তাই এই কাজ করার সময় যদি আপনি ১ নং এ অনলাইনে চালান পে করেন, তাহলে আপনি একটি নতুন পেজে চলে যাবেন। নতুন পেজের মাধ্যমে আপনি যখন অনলাইনে টাকা জমা দিবেন সেটা কার্ড বা বিকাশ যে মাধ্যমেই কাজটা করবেন সঙ্গে সঙ্গে চালানের রশিদটি প্রিন্ট করে নিবেন । তারপর নতুন এই পেজটি ক্লোজ করে পূর্বের পেজে ফিরে এসে ( একই জায়গার ) ২ নং অপশন থেকে সেই তথ্য ইনপুট করতে হবে এবং সর্বশেষে প্রিন্ট কপিটি আপলোড করতে হবে। আপনি যদি সেই অপশনে ফিরে যেতে না পারেন তাহলে Pending For Payment এ ক্লিক করুন। এখন বলব ই-চালান তথ্যটা কিভাবে ইনপুট করবেন। এই তথ্য তথ্য ইনপুট করার পদ্ধতি সাধারণ চালান তথ্য ইনপুট করার মতই তবে সবার জন্য একটি নির্দিষ্ট জেলা ও ব্রাঞ্চ সিলেক্ট করা আবশ্যক। সাধারণ চালান নম্বরের চেয়ে ই-চালানের নম্বরের ডিজিট বেশি হয়। ই-চালানের নম্বরটি এরকম হয় : P036600053 এটা উদাহরণ স্বরুপ। আপনার চালান ফরমে যে চালান নম্বর দেয়া থাকবে আপনি সেটি ব্যবহার করবেন। আপনি যদি চালানকোডটি ভুল করেন তাহলে আপনার টাকার তথ্য নির্দিষ্ট চালানকোডে না থাকার কারণে আপনি চালান তথ্য ইনপুট করতে পারবেন না। আবার আপনি যখন চালান তথ্য ইনপুট করবেন তখন যদি তথ্য সংক্রান্ত কোন ভুল করেন
    তাহলেও আপনি চালান তথ্য ইনপুট করতে পারবেন না। চালান তথ্য ইনপুট করুন এইভাবে Bank name: Sonali Bank, District: Dhaka Branch: Local Office Branch, Chalan Date: Date of Bank, Scroll No: চালান নম্বর লিখুন (চালানকোড নয়) অনেকেই চালানকোডকে চালান নম্বর ভেবে টাইপ করেন যা ভুল কাজ। চালান নম্বর দেয়ার পর পাশের নীল বাটনে (Check Scroll ( বর্তমানে Check Chalan) ক্লিক করুন। অনেকেই উক্ত বাটনে ক্লিক না করেই হেল্পডেস্কে ফোন করেন। সেখানে ক্লিক না করলে আপনি পরবর্তী কাজ করতে পারবেন না। Check Scroll/Chalan বাটনে ক্লিক করার পর চালান কপির ছবিটি আপলোড করুন। তারপর Finish বাটনে ক্লিক করুন। আপনার আবেদন জমা হয়ে যাবে। আশা করি উপকৃত হয়েছেন।

    বিঃদ্রঃ ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার পরবর্তী কর্মদিবস বেলা ১১ ঘটিকার পর চালান তথ্য ইনপুট করতে হবে

More Problems

চালান তথ্য ইনপুট করার নিয়ম

    চালান কপি আপলোড করার পদ্ধতি

    আবেদন সাবমিট করার সবচেয়ে গুরুত্ত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে চালান তথ্য ইনপুট করা। এই ধাপটিই আবেদন প্রক্রিয়ার সর্বশেষ ধাপ। চালান তথ্য ইনপুট করতে না পারার কয়েকটি কারণ আছে। প্রথম কারণটি হচ্ছে চালানকোড। অনলাইন পুলিশ ক্লিয়ারেন্সের হোম পেজে সোনালী ব্যাংকে টাকা জমা দেওয়ার ট্রেজারী চালানকোডটি দেওয়া আছে। (চালানকোড-১-৭৩০১-০০০১-২৬৮১) আপনি যদি চালানকোডটি ভুল করেন তাহলে আপনার টাকার তথ্য নির্দিষ্ট চালানকোডে না থাকার কারণে আপনি চালান তথ্য ইনপুট করতে পারবেন না Read More